নাগরিক নিরাপত্তাকে প্রাধান্য দিয়ে উন্নয়নে আগ্রহী সম্ভাব্য প্রার্থীরা

নাগরিক নিরাপত্তাকে প্রাধান্য দিয়ে উন্নয়নে আগ্রহী সম্ভাব্য প্রার্থীরা

১১নং ওয়ার্ড

আসাফুর রহমান কাজল
ড্রেনেজ সমস্যা, মাদক, চুরি, ছিনতাই, স্বাস্থ্য সমস্যা, পয়ঃনিষ্কাশন সমস্যা, জলাবদ্ধতাসহ নিরাপত্তা শঙ্কার মধ্যে থাকেন ১১নং ওয়ার্ডের নাগরিকরা। নাগরিক সেবা থেকে বঞ্চিত ওয়ার্ডের মানুষের নিরাপত্তা নিশ্চিত করে এলাকার উন্নয়ন করতে চান সম্ভাব্য কাউন্সিলর প্রার্থীরা।
জানা গেছে, খুলনা সিটি কর্পোরেশনের ২০১৩ সালের ১৫ জুনের নির্বাচনে ১১নং ওয়ার্ডের ভোটার ছিল ৮ হাজার ৮শ’ ২৫ এবং কাউন্সিলর প্রার্থী ছিলেন ২ জন। আসন্ন কেসিসি নির্বাচনে সম্ভাব্য কাউন্সিলর প্রার্থী ৫ জন। ওয়ার্ডের মোট আয়তন ৪.৪৮ বর্গ কিলোমিটার। প্রায় ২৫ হাজার বসতির এ ওয়ার্ডের পূর্বদিকে বিআইডিসি রোড এবং ১৩ ও ৮নং ওয়ার্ড, পশ্চিমে শিশু পার্ক রোড এবং ১০নং ওয়ার্ড, উত্তরে বিআইডিসি রোড এবং ৮নং ওয়ার্ড এবং দক্ষিণে রয়েছে খালিশপুর নিউমার্কেট রোড এবং ১২নং ওয়ার্ড। এ ওয়ার্ডে রয়েছে বাংলাদেশ টেলিভিশনের উপকেন্দ্র, ওয়ান্ডারল্যান্ড শিশু পার্ক, টিঅ্যান্ডটি অফিস, খালিশপুর ফায়ার সার্ভিস, সঞ্চয়িতা পুলিশ ফাঁড়ি, ইঞ্জিনিয়ারিং ইনস্টিটিউট, আরবান প্রাইমারী হেল্থ কেয়ার, বর্জ্য অপসারণ পয়েন্ট, প্লাটিনাম শ্রমিক কলোনী, পিপলস কলোনী, খালিশপুর ঈদগাহ ময়দান, খালিশপুর নিউমার্কেট।
আসন্ন কেসিসি নির্বাচনে জয়ী হলে শিক্ষা, স্বাস্থ্য, বেকারত্ব দূরীকরণে কাজ করবেন বলে জানান বর্তমান কাউন্সিলর এবং ওয়ার্ড বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মোঃ ইউনুস আলী সরদার। তিনি বলেন, এ ওয়ার্ডে অনেক উন্নয়নমূলক কাজ হয়েছে। বিআইডিসি রোড-ড্রেনেজ, লেক সংস্কার, মার্কেট উন্নয়ন, মাদক সহনশীল পর্যায়ে আনাসহ নানাবিধ উন্নয়নমুখি কাজ হয়েছে।
ড্রেনেজ, রাস্তাঘাট, মাদক, বেকারত্বসহ এ ওয়ার্ডের মানুষ দিনে রাতে নিরাপত্তাহীনতায় রয়েছে বলে জানান ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মুন্সি আব্দুল ওয়াদুদ। তিনি বলেন, দল সমর্থন দিলে শিক্ষা-দিক্ষায় উন্নতি করে এবং নিরাপত্তা নিশ্চিত করে একটি পরিচ্ছন্ন ওয়ার্ড উপহার দেব এলাকাবাসীকে।
ওয়ার্ডের মানুষ ড্রেনেজ সমস্যা, মাদক, চুরি, ছিনতাই, স্বাস্থ্য সমস্যা, পয়ঃনিষ্কাশন সমস্যা, জলাবদ্ধতাসহ নাগরিক সেবা থেকে বঞ্চিত বলে জানান যুব নেতা শেখ শাহারিয়া বাবু। তিনি বলেন, দল তাকে সমর্থন দিলে সাধরণ মানুষকে সাথে নিয়ে সামাজিক অবক্ষয় রোধ, মাদক নির্মূল, মহল্লায় মহল্লায় নাইট গার্ড নিয়োগ করে এলাকাবাসীর শান্তি নিশ্চিত করবো।
এ ওয়ার্ডের ড্রেনের ওপর ভাঙা স্লাব, ড্রেনেজ সমস্যা, চুরি, ছিনতাই, মাদক, স্বাস্থ্য সমস্যা, পয়ঃনিষ্কাশন সমস্যা, জলাবদ্ধতা এবং পরিচ্ছন্নতার অভাব রয়েছে বলে জানান ওয়ার্ড যুবলীগের আহবায়ক মোঃ জামান মোল্লা জেলিম। তিনি বলেন, এবার নির্বাচনে দল আমাকে সমর্থন দিলে এলাকার শান্তি-শৃঙ্খলায় ভূমিকা রাখবো।
ড্রেনেজ সমস্যা, রাস্তাঘাট, মাদক, সড়কবাতি, চুরি, ছিনতাই, স্বাস্থ্য সমস্যা, পয়ঃনিষ্কাশন সমস্যা, জলাবদ্ধতা এবং নির্দিষ্ট ডাস্টবিনসহ অনেক নাগরিক সেবা থেকে বঞ্চিত বলে জানান যুবনেতা কাজী নেয়ামুল হক মিঠু। তিনি বলেন, আশা করছি দল আমাকে সমর্থন দেবে। তবে দল সমর্থন না দিলে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে অংশ নেবেন। নিবার্চনে জয়ী হলে এলাকাবাসীকে পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন, শান্তি, নিরাপত্তা নিশ্চিত করে এলাকার উন্নয়নে কাজ করবেন বলে তিনি জানান।
১১নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ জাকির হোসেন আসন্ন কেসিসি নির্বাচনে দলের সমর্থন পেলে নির্বাচনে অংশ নেবেন বলে জানা গেছে।

 

SHARE THIS NEWS

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Scroll To Top