দেশ ও জনগণের উন্নয়নে পুনরায় শেখ  হাসিনার নেতৃত্বে সরকার গঠন করতে হবে

দেশ ও জনগণের উন্নয়নে পুনরায় শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সরকার গঠন করতে হবে

মহানগর আ’লীগের নির্বাহী সভায় নেতৃবৃন্দ

স্টাফ রিপোর্টার
খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগের নির্বাহী কমিটির সভায় নেতৃবৃন্দ বলেছেন, দেশ ও জনগণের উন্নয়নে পুনরায় শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সরকার গঠন করতে হবে। তা না হলে দেশের ধারাবাহিক উন্নয়ন এবং জাতির ওপর বিপর্যয় নেমে আসবে। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সরকার গঠন করতে এবং সম্ভাব্য বিপর্যয় ঠেকাতে দলকে সুসংগঠিত করতে হবে। সমাজে অন্যায়, বিপর্যয় ও শান্তি বিঘœকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। নেতৃবৃন্দ আরও বলেন, যারা বিশ্বনেত্রী দেশরতœ শেখ হাসিনার ধারাবাহিক উন্নয়নে বাধার সৃষ্টি এবং দেশ ও জনগণের ওপর বিপর্যয় সৃষ্টি করতে চায় তাদেরকে এখনই চিহ্নিত করতে হবে। মনে রাখতে হবে, দীর্ঘদিন দল রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় থাকার কারণে অনেক ষড়যন্ত্রকারী দলে অনুপ্রবেশ করেছে। ওই সকল অনুপ্রবেশকারীরাই আওয়ামী লীগের নাম ব্যবহার করে সমাজে নানা ধরনের বিশৃঙ্খলার সৃষ্টি করছে। যার দায় আওয়ামী লীগের ওপর এসে পড়ছে। নিজেদের ভেতরের সকল দ্বিধা দ্বন্দ্ব ভুলে গিয়ে ঐক্যবদ্ধ হয়ে ওই সকল চিহ্নিত ষড়যন্ত্রকারীদের খুঁজে বের করে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশের উন্নয়ন ধারাকে অব্যাহত রাখতে হবে।
রোববার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় দলীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী কমিটির সভায় নেতৃবৃন্দ এসব কথা বলেন। নেতৃবৃন্দ প্রশাসনের উদ্দেশ্যে বলেন, কোন মাদক ব্যবসায়ী, সন্ত্রাসী, ধর্ষক বা ইভটিজার আওয়ামী লীগের সদস্য হতে পারে না। যারা এ ধরনের সমাজ ও রাষ্ট্রবিরোধী ব্যবসার সাথে জড়িত তাদের গ্রেফতারের মাধ্যমে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি প্রদান করে সমাজের মানুষের শান্তি নিশ্চিত করার আহবান জানান। নেতৃবৃন্দ আরো বলেন, আইন শৃঙ্খলা রক্ষা করতে যেয়ে নিরীহ জনগণ যেন কোন ভোগান্তিতে না পড়ে সেদিকে দৃষ্টি রাখার জন্য সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের প্রতি আহবান জানান।
খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগ সভাপতি ও সাবেক মেয়র আলহাজ তালুকদার আব্দুল খালেক এমপি’র সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক ও ১৪ দলের সমন্বয়ক আলহাজ মিজানুর রহমান মিজান এমপি’র পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন অ্যাড. চিশতি সোহরাব হোসেন শিকদার, কাজি আমিনুল হক, শেখ হায়দার আলী, কাজী এনায়েত হোসেন, মোল্লা শওকত আলী, মল্লিক আবিদ হোসেন কবির, শেখ সিদ্দিকুর রহমান, অ্যাড. রজব আলী সরদার, এমডিএ বাবুল রানা, নুরুল ইসলাম বন্দ, অ্যাড. আইয়ুব আলী, শ্যামল সিংহ রায়, জামাল উদ্দিন বাচ্চু, শেখ ফজলুল হক, জেড এ মাহমুদ ডন, অ্যাড. খন্দকার মজিবর রহমান, অ্যাড. অলোকা নন্দা দাস, অধ্যাপক আলমগীর কবির, আলী আকবর টিপু, অধ্যক্ষ শহিদুল হক মিন্টু, মো. জাহাঙ্গীর হোসেন খান, কামরুল ইসলাম বাবলু, বিরেন্দ্র নাথ ঘোষ, শেখ মো. ফারুক আহমেদ, আবুল কালাম আজাদ কামাল, হাফেজ মো. শামীম, মফিদুল ইসলাম টুটুল, শেখ নূর মোহাম্মদ, আবুল কালাম আজাদ, শেখ মোশাররফ হোসেন, মো. শাহাজাদা, শেখ মোশাররফ হোসেন, মোজাম্মেল হক হাওলাদার, আব্দুল্লাহ হারুন রুমি, স. ম. রেজওয়ান, অ্যাড. মো. সাইফুল ইসলাম, শেখ সৈয়দ আলী, এ কে এম সানাউল্লাহ নান্নু, শেখ আবিদ হোসেন, ফকির মো. সাইফুল ইসলাম, তসলিম আহমেদ আশা, মনিরুল ইসলাম বাশার, এস এম আনিছুর রহমান, আলী আজগর মিন্টু, মাহাবুবুল আলম বাবলু মোল্লা, হাসান ইফতেখার চালু, মাকসুদ আলম খাজা, আমিনুল ইসলাম মুন্না, শামছুজ্জামান মিয়া স্বপন, অধ্যাপিকা রুনু ইকবাল, অ্যাড. সুলতানা রহমান শিল্পী।
সভায় ৭, ১২ ও ২২নং ওয়ার্ড দুর্বল হওয়ায় এ তিনটি কমিটি ভেঙে দেওয়ার সর্বসম্মত সিদ্ধান্ত হয়। ৭নং ওয়ার্ডে মো. সেলিম আহমেদকে আহবায়ক ও জিয়াকে সদস্য সচিব এবং ২২নং ওয়ার্ডে মাহাবুবুল আলম বাবলু মোল্লাকে আহবায়ক করা হয়। এছাড়া ১৮, ২১, ২৯, ৩০ ও ৩১নং ওয়ার্ড সম্পর্কে মিটিং ডেকে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করার সিদ্ধান্ত হয়।
আগামী ২৫ নভেম্বর বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক, সড়ক পরিবহণ ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এমপি খুলনায় সদস্য সংগ্রহ টিকিট বিতরণ কার্যক্রমের উদ্বোধন করবেন বলে সিদ্ধান্ত হয়।
সভায় বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ সভাপতি ম-লীর সদস্য সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের সহধর্মিণীর মৃত্যুতে মহানগর আওয়ামী লীগের সভায় শোক প্রস্তাব গ্রহণ করা হয়। একই সাথে শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করা হয়। এছাড়া মহানগর আওয়ামী লীগ সাংগঠনিক সম্পাদক মো. আশরাফুল ইসলামের পিতা হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে শহীদ শেখ আবু নাসের হাসপাতালে চিকিৎসাধীন থাকায় তার সুস্থতা কামনা করা হয়।

SHARE THIS NEWS

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Scroll To Top