ডুমুরিয়ায় গরু ব্যবসায়ীর টাকা ছিনতাইয়ে ২ পুলিশ সদস্যসহ ৪ জন গ্রেফতার, আদালতে স্বীকারোক্তি

ডুমুরিয়ায় গরু ব্যবসায়ীর টাকা ছিনতাইয়ে ২ পুলিশ সদস্যসহ ৪ জন গ্রেফতার, আদালতে স্বীকারোক্তি

ডুমুরিয়া/চুকনগর প্রতিনিধি
খুলনার ডুমুরিয়ায় গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি) পরিচয়ে এক গরু ব্যবসায়ীর ৯ লক্ষাধিক টাকা ছিনতাই মামলায় দুই পুলিশ সদস্যসহ চারজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। বুধবার রাতে ডুমুরিয়া থানা ও সাতক্ষীরা থেকে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। এর মধ্যে দুই পুলিশ সদস্যের কাছ থেকে ছিনতাই করা ৬ লাখ ১৯ হাজার ৫শ’ টাকা ও ট্রাক চালকের কাছ থেকে ৩৫ হাজার ৫শ’ টাকা উদ্ধার করা হয়েছে। খুলনার পুলিশ সুপার নিজামুল হক মোল্লা বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন- ডুমুরয়িা থানার এএসআই আবদুর রউফ বিশ্বাস, কনস্টেবল নাদিম, ট্রাকচালক মনির সরদার ও সহযোগী রাজু ঘোষ। গ্রেপ্তারকৃত ট্রাকচালক মনির সরদার সাতক্ষীরা সদর উপজেলার কামালনগর গ্রামের মোকসেদ সরদারের ছেলে এবং রাজু ঘোষ সাতক্ষীরা সদরের পুরাতন সাতক্ষীরা গ্রামের স্বপন ঘোষের ছেলে।
ডুমুরিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ হাবিল হোসেন জানান, সাতক্ষীরা সদর থানার নলকুড়া গ্রামের আব্দুল কাদের সরদারের ছেলে গরু ব্যবসায়ী গোলাম রসুল ওরফে লিটন ও তার সহযোগীরা ডুমুরিয়া উপজলোর খর্ণিয়ার হাটে ২২টি গরু বিক্রি করে ৯ লাখ ১৫ হাজার টাকা নিয়ে ট্রাকযোগে বাড়ি ফিরছিলেন। তিনি উপজেলার চুকনগর-খুলনা মহাসড়কের সাতক্ষীরা ফুডস থেকে ৫০০ গজ দূরে পৌঁছালে দু’জন লোক ডিবি পরিচয়ে ট্রাকের গতিরোধ করে মাদক আছে বলে তল্লাশি শুরু করে। এক পর্যায়ে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে তাদের কাছ থেকে ৯ লাখ ১৫ হাজার টাকা ছিনিয়ে নিয়ে যায়। টাকা ছিনতাইর ঘটনায় দস্যুতা আইনে ১৫ ফেব্রুয়ারি রাতে ব্যবসায়ী গোলাম রসুল লিটন বাদী হয়ে অজ্ঞাত ২ ব্যক্তিকে আসামি করে ডুমুরিয়া থানায় মামলা এ দায়ের করেন। মামলা দায়েরের পর জেলা পুলিশ সুপারের তত্ত্বাবধানে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার বি সার্কেল মোঃ সজিব খান ও জেলা গোয়েন্দা পুলিশের একটি টিম অভিযান চালিয়ে গত বুধবার ঘটনার সাথে জড়িত ডুমুরিয়া থানার একজন এ এস আই এবং একজন পুলিশ কনস্টবলকে গ্রেফতার করেছে। ঘটনায় তদন্ত অব্যাহত আছে বলে পুলিশের একটি সূত্র জানিয়েছে। এদিকে গ্রেফতারকৃত দুই পুলিশসহ চার আসামি আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে। বৃহস্পতিবার বিকেলে খুলনার জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট পলাশ কুমারের আদালতে তারা এ জবানবন্দি প্রদান করেন। আসামিরা ফৌজদারী কার্যবিধি আইনের ১৬৪ ধারা মোতাবেক নিজেদের সম্পৃক্ততার কথা উল্লেখসহ স্বীকারোক্তিমূলক এ জবানবন্দি প্রদান করেন। পরে আসামিদের জেল হাজতে প্রেরণের নির্দেশ দেওয়া হয়।

SHARE THIS NEWS

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Scroll To Top