বাগেরহাটের সুন্দরবন সংলগ্ন হারবাড়িয়ায় ৭০০ মেট্রিক টন কয়লা নিয়ে জাহাজডুবি

বাগেরহাটের সুন্দরবন সংলগ্ন হারবাড়িয়ায় ৭০০ মেট্রিক টন কয়লা নিয়ে জাহাজডুবি

বাগেরহাট ও মোংলা (বাগেরহাট) সংবাদদাতা
বাগেরহাটের পূর্ব-সুন্দরবন বিভাগের হারবাড়িয়া এলাকায় ৭৭৫ মেট্রিক টন কয়লা নিয়ে এমভি বিলাস নামে একটি লাইটার ভ্যাসেল ডুবে গেছে। শনিবার দিনগত রাত ৩টায় মোংলা বন্দর থেকে প্রায় ৬০ নটিক্যাল মাইল দূরে হারবাড়িয়া ৫ নাম্বার অ্যাংকরে ডুবোচরে আটকে পড়ে ৭৭৫ মেট্রিকটন কয়লা নিয়ে ওই লাইটার ভ্যাসেলটি ডুবে যায়। ডুবে যাওয়া লাইটার ভ্যাসেলটিকে দেখা যাচ্ছে। তবে এতে হতাহতের কোন খবর পাওয়া যায়নি।
কয়লা আমদানিকারক প্রতিষ্ঠান সাহারা এন্টারপ্রাইজের ব্যবস্থাপক (অপারেশন) মোঃ লালন হাওলাদার সাংবাদিকদের জানান, গত ১৩ এপ্রিল লাইবেরিয়ার পতাকাবাহি এমভি অবজারভেটর নামের একটি জাহাজ সাড়ে ২৪ হাজার মেট্রিক টন কয়লা নিয়ে মোংলা বন্দরের হারবাড়িয়ার ৬ নাম্বার অ্যাংকরে নোঙর করে। ১৪ এপ্রিল সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত এক হাজার মেট্রিক টন ধারণ ক্ষমতার লাইটার ভ্যাসেল এমভি বিলাস ৭৭৫ মেট্রিক টন কয়লা ওই জাহাজ থেকে খালাস করে ঢাকার মীরপুরের উদ্দেশে রওনা হয়। হারবাড়িয়ার ৫ নাম্বার অ্যাংকরে লাইটার ভ্যাসেলটি পৌঁছে ডুবোচরে আটকা পড়ে। লাইটার ভ্যাসেলের মাস্টার ডুবোচর থেকে উদ্ধার পাওয়ার জন্য মোংলা বন্দরের সাহায্য চায়। বন্দর কর্তৃপক্ষের উদ্ধারযানটি ঘটনাস্থলে পৌঁছেও তা রক্ষা করতে পারেনি। প্রবল জোয়ারের চাপে কয়লা বোঝাই ভ্যাসেলটি কাত হয়ে ডুবে গেছে। তিনি আরও বলেন, এই লাইটার ভ্যাসেলে যে কয়লা রয়েছে তা কোথাও ভেসে যায়নি। ভ্যাসেলেই রয়েছে। সুতরাং এতে পরিবেশের কোন ক্ষতির আশঙ্কাও নেই বলে দাবি করে ওই আমদানিকারক প্রতিষ্ঠান। মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের হারবার মাস্টার মোহম্মদ ওয়ালিউল্লাহ বলেন, কয়লাবাহি লাইটার ভ্যাসেল এমভি বিলাস আমাদের সাহায্য চাইলে আমাদের উদ্ধার যান এমভি শিবসা সেখানে পৌঁছে তাদের উদ্ধারের চেষ্টা করে। রাত তিনটার দিকে জোয়ারের পানির তোড়ে কয়লা বোঝাই লাইটার ভ্যাসেলটি কাত হয়ে ডুবে যায়। তবে এতে কোন হতাহতের ঘটনা ঘটেনি। লাইটার ভ্যাসেলটিকে দেখা যাচ্ছে। কিভাবে জাহাজটি উদ্ধার করা যাবে তার চেষ্টা চলছে।

SHARE THIS NEWS

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Scroll To Top