‘খালেদার সঙ্গে কাউকে দেখা করতে দেওয়া হচ্ছে না’

‘খালেদার সঙ্গে কাউকে দেখা করতে দেওয়া হচ্ছে না’

প্রবাহ রিপোর্ট : খালেদা জিয়ার সঙ্গে কাউকে দেখা করতে দেওয়া হচ্ছে না অভিযোগ করে বিষয়টিকে ‘জেলকোড পরিপন্থি’ এবং ‘মানবাধিকার লঙ্ঘন’ বলছেন মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।
বুধবার রাজধানীর নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন বিএনপির মহাসচিব।
মির্জা ফখরুল ইসলাম বলেন, কারাবন্দি হিসেবে বেগম জিয়ার যে সাংবিধানিক অধিকার পাবার কথা সেটি থেকেও তাকে বঞ্চিত করা হচ্ছে। ১১ দিন ধরে তার সাথে পরিবারের লোকজনও দেখা করতে পারছেন না। ৩০ জুন সর্বশেষে তারা দেখা করেছেন। আমরা তো পারছিই না। এমনকি আইনজীবী ও তার চিকিৎসকরাও দেখা করতে পারছেন না।’ মির্জা ফখরুল বলেন, ‘আমরা শুরু থেকেই বলছি বেগম জিয়ার বিরুদ্ধে বিভিন্ন মামলার ফাঁদ পাতা হয়েছিল। আলাদা আদালত বানিয়ে তাকে দ্রুত সাজা দেওয়া হয়েছে। উদ্দেশ্য একটাই রাজনীতি থেকে সরিয়ে দেওয়া। তাকে সরিয়ে দিতে পারলেই তাদের পথের কাটা দূর হবে।’ খালেদা জিয়ার সঙ্গে কাউকে দেখা করার সুযোগ না দেওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করে বিএনপির মহাসচিব বলেন, ‘দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে মিথ্যা মামলায় সাজাপ্রাপ্ত বন্দি হিসেবে আটক রাখার পর তিনি কারাবিধির ৬১৭ বিধি অনুসারে ডিভিশন-১ প্রাপ্ত হন। ডিভিশন-১ প্রাপ্ত বন্দির সাথে সাক্ষাৎ করার জন্য কারাবিধির সপ্তদশ অধ্যায়ে (বিধি-৬৬৩-৬৮১) বর্ণিত অধিকারে খালেদা জিয়ার সাথে তার রাজনৈতিক সহকর্মী এবং বন্ধুবান্ধবের সাক্ষাৎকারের বিষয়টি বিশদভাবে বলা আছে।’ তিনি বলেন, ‘বেগম খালেদা জিয়ার সাথে একজন নারী কর্মীকে থাকার অনুমতি দিয়ে সরকার যে বাহবা নেওয়ার চেষ্টা করছেন তা জাতির সাথে ধোকাবাজি করা। কারণ কারাবিধি ৯৪৮ অনুসারে সরকার একজন মহিলা কর্মী দিতে বাধ্য।’ সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুস সালাম আজাদ, প্রাক্তন সাংসদ সালাউদ্দীন আহমেদ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

SHARE THIS NEWS

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Scroll To Top