ভিজিএফ’র চাল কম দেওয়ার অভিযোগে ইউপি কার্যালয়ে হামলা : ইউএনওকে ঘেরাও

ভিজিএফ’র চাল কম দেওয়ার অভিযোগে ইউপি কার্যালয়ে হামলা : ইউএনওকে ঘেরাও

স্টাফ রিপোর্টার : ঈদুল আজহা উপলক্ষে অসহায় ও দুঃস্থ ব্যক্তিদের জন্য বরাদ্দকৃত ভিজিএফ’র চাল ওজনে কম দেওয়ার অভিযোগে তুলকালাম কা- হয়েছে খুলনার দিঘলিয়া উপজেলার সেনহাটি ইউনিয়ন পরিষদে। শনিবার দুপুর ১২টার দিকে ইউপি কার্যালয়ে হামলার ঘটনা ঘটে। এ সময় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ঘটনাস্থলে গেলে ক্ষুব্ধ জনতা তাকে অবরুদ্ধ করে। এ অবস্থায় দু’ঘন্টা চাল বিতরণ বন্ধ ছিল। ভিজিএফ’র চাল বিতরণকালে হামলার সময় অল্পের জন্য মারাত্মক অহত হবার হাত থেকে বেঁচে গেলেন দিঘলিয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার শম্পা কু-ু, ইউপি চেয়ারম্যান জিয়া ও থানার ওসি।
এডিশনাল পুলিশ সুপার মোহাম্মদ নাইমূল হক জানান, বেলা পৌনে ২টায় একদল লোক সেনহাটী ইউনিয়নের চেয়ারম্যানের রুমে আক্রমণ চালায়। তারা জানালার কাঁচ ভাংচুর করে। পরিষদের অধিকাংশ জানালার কাঁচ ভেঙে ফেলে। এ সময় চেয়াম্যানের রুমে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার শম্পা কু-ু, চেয়াম্যান গাজী জিয়াউর রহমানসহ ইউপি সদস্যরা। অতর্কিত হামলায় তারা হতভম্ব হয়ে বাথরুমসহ বিভিন্ন স্থানে আশ্রয় নিয়ে অক্ষত থাকেন।
ইউপি কার্যালয়ের সূত্র জানান, ঈদুল আজহা উপলক্ষে অসহায় ও দুঃস্থ ব্যক্তিদের জন্য দিঘলিয়া উপজেলার সেনহাটি ইউনিয়নের ৫ হাজার ২৯৬ জনের মধ্যে ১ লাখ ৫ হাজার ৯২০ কেজি চাল বরাদ্দ হয়। শনিবার সকাল সাড়ে ৯টা থেকে ইউপি চেয়ারম্যান গাজী জিয়াউর রহমান ওরফে জিয়া গাজী চাল বিতরণ শুরু করেন। এ সময় ট্যাগ অফিসার উপজেলা মহিলাবিষয়ক কর্মকর্তা না থাকায় তার প্রতিনিধি নবির হোসেন ও প্রকল্প অফিসের উপ-সহকারী সিরাজুল ইসলামের উপস্থিতিতে চাল বিতরণ শুরু হয়। এক পর্যায়ে মাথাপিছু ২০ কেজির স্থলে ১৫ থেকে ১৭ কেজি করে চাল দেওয়ার অভিযোগ ওঠে। বিষয়টি নিয়ে অসহায় ও দুঃস্থদের মধ্যে ক্ষোভ দেখা দেয়। ক্ষুব্ধরা ইউপির পার্শ্ববর্তী উপজেলা প্রেস ক্লাবের সামনের খোলা জায়গায় জড় হন। এ সময় অভিযোগ পেয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শম্পা কু-ু ঘটনাস্থলে আসেন। তিনি দুঃস্থ-অসহায়দের লিখিত অভিযোগ করতে বলেন। এতে ক্ষিপ্ত জনতা তাকে ঘেরাও করে রাখে। পুলিশের হস্তক্ষেপে তিনি সেখান থেকে বের হয়ে সেনহাটি ইউপি কার্যালয়ে গিয়ে দুপুর সাড়ে ১২টায় চাল বিতরণ কার্যক্রম স্থগিত ঘোষণা করেন। এ সময় ইট পাটকেল ও লাঠিসোটা নিয়ে ইউপি কার্যালয়ে হামলার ঘটনা ঘটে। পরবর্তীতে বেলা আড়াইটার দিকে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শম্পা কু-ু, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার নাইমুল ইসলাম ও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা হাবিবুর রহমানের উপস্থিতিতে চাল বিতরণ শুরু হয়।
সেনহাটী ইউপি চেয়ারম্যান গাজী জিয়া জানান, সকাল ৯টা থেকে চাল বিতরণের আগে ট্যাগ অফিসার শেখ নবীর হোসেন, পুলিশ আফিসারসহ স্থানীয় ইউপি সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন। পরিষদ থেকে চাল মেপে বুঝে নেওয়ার পর কিছুদূর যেয়ে কতিপয় লোক অভিযোগ করেন চাল কম দেওয়া হচ্ছে। কয়েকজন প্রেস ক্লাবের পাশে দোকানে মেপে ১৭-১৮ কেজি হয়েছে বলে জানায়। পরিকল্পিতভাবে পুলিশের উপস্থিতিতে হামলা চালিয়েছে। অভিযোগকারীদের খবরে উপজেলা নির্বাহী অফিসার শম্পা কু-ু নিজে উপস্থিত হয়ে বিষয়টি তদন্ত করেন। তিনি জানান, ৫০ বস্তা চাল কম আছে এবং চাল কম দেওয়া হচ্ছে এমন অভিযোগ পেয়ে তিনি সেনহাটী ইউনিয়ন পরিষদে উপস্থিত হন। চাল ঠিকই পাওয়া যায় এবং সঠিক মাপে চাল দেওয়ার প্রমাণ মেলে। হামলার বিষয়ে তিনি জানান, বিষয়টি তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
চাল কমের বিষয়টি সরেজমিন তদন্তকারী ট্যাগ কর্মকর্তা নবীর জানান, ৫২৯৬ জন সুবিধাভোগীর জন্য রক্ষিত ৩৫২৯ বস্তা চাল বুঝে পান ইউনিয়ন পরিষদের গুদামে।
তবে স্থানীয়রা বলছেন, হামলার সময় পুলিশ উপস্থিত থাকা সত্ত্বেও কাউকে আটক করতে পারেনি। বিষয়টি জনমনে ব্যাপক প্রশ্নের সৃষ্টি করেছে।

SHARE THIS NEWS

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Scroll To Top