Breaking News
Home / স্থানীয় সংবাদ / মহেশপুরে শিক্ষকদের বই বাণিজ্য শুরু

মহেশপুরে শিক্ষকদের বই বাণিজ্য শুরু

মহেশপুর (ঝিনাইদহ) প্রতিনিধি
নতুন বছরের প্রথম দিনেই ঝিনাইদহের মহেশপুর উপজেলার সবকটি স্কুলের ছাত্র-ছাত্রীদের হাতে সরকারের দেওয়া নতুন ক্লাসের বই তুলে দেওয়া হয়েছে। এবার স্কুলের শিক্ষকরা গাইড বই কোম্পানি ও লাইব্রেরীর (বইয়ের দোকান) কাছ থেকে মোটা অঙ্কের টাকার বিনিময়ে স্কুলের ছাত্র-ছাত্রীদের হাতে সরকার নিষিদ্ধ গাইড বই তুলে দিচ্ছে।
জানা যায়, মহেশপুর উপজেলার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ২য় শ্রেণি থেকে শুরু করে দশম শ্রেণি পর্যন্ত সবকটি ক্লাসের ছাত্র-ছাত্রীদেরকে স্কুলের শিক্ষকরা ইতোমধ্যেই গাইড বইয়ের শ্লিপ দিয়েছে। উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষক সমিতির নেতাদের ইশারায় অনেক স্কুলের শিক্ষকরা ছাত্র-ছাত্রীদের হাতে গাইড বই তুলে দিয়েছে।
মহেশপুরে রেকসোনা বুক ডিপো, মহেশপুর বইঘর, আলাউদ্দিন লাইব্রেরীসহ কয়েকটি বইয়ের দোকানের মালিক গোডাউন ভাড়া নিয়ে বিভিন্ন কোম্পানির নি¤œমানের গাইড বই গোডাউনজাত করে রেখেছে। এখন উপজেলার বিভিন্ন প্রাথমিক ও মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের সাথে মোটা অঙ্কের টাকার বিনিময়ে চুক্তিবদ্ধ হয়ে গাইড বইগুলো গোডাউন থেকে সরবরাহ করা হচ্ছে। এদিকে রেকসোনা বুক ডিপোর মালিক ইতোপূর্বে অনেক বই কোম্পানির বই নকল করার দায়ে ক্ষমা প্রার্থনাও করেছেন। কিন্তু তার পরও রেকসোনা বুক ডিপোর মালিক আলমগীর হোসেনের গাইড বইয়ের ব্যবসা থেমে নেই। এভাবেই প্রতিবছর সরকার নিষিদ্ধ গাইড বই বিক্রি করে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নেওয়া হচ্ছে।
উপজেলা ম্যাধমিক শিক্ষক সমিতির সভাপতি ওয়ায়েজ উদ্দিন জানান, এর মধ্যে শিক্ষক সমিতির কোনো নেতা বা অন্য কেউই জড়িত নেই। এক এক স্কুল বসে সিদ্ধান্ত নিচ্ছে তার প্রতিষ্ঠানে কোনো গাইড পড়ানো হবে সে বিষয়ে। তবে এটা চুক্তির বিনিময়ে হচ্ছে কি না তা আমার জানা নেই।
উপজেলা প্রথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মাহাবুবুর রহমান জানান, আমাকে এখনও পর্যন্ত গাইড বইয়ের ব্যাপারে কেউ জানায়নি। তার পরও আমি বিভিন্ন বিদ্যালয়ে খোঁজ খবর নিচ্ছি। প্রমাণ পেলেই ব্যবস্থা নেব।
উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আমজাদ হোসেন জানান, সরকার নিষিদ্ধ বইয়ের ব্যাপারে ব্যবস্থা নেব। আমি কাউকেই এ বিষয়ে ছাড় দেবোনা। উপজেলা নির্বাহী কর্তকর্তা শাশ্বতী শীল জানান, আমি এখানে থাকতে আমার এলাকায় সরকার নিষিদ্ধ কোনো গাইড বই চলবে না। আমি তদন্ত করে দেখে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেব।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*