Breaking News
Home / স্থানীয় সংবাদ / কেসিসি মেয়রের নতুন উদ্যোগ

কেসিসি মেয়রের নতুন উদ্যোগ

শারীরিকভাবে অক্ষম শ্রমিকদের পরিবর্তে কাজ করবে তার মনোনীত ব্যক্তি

আসাফুর রহমান কাজল : কেসিসির শ্রমিক আব্দুল গফফার হাওলাদার। ৪ বছর ধরে মানসিক রোগী। পরিবার থেকে তাকে দু’বার বিয়ে দেওয়া হলেও মানসিক ভারসাম্যহীনতার কারণে সে বিয়ে টেকেনি। ১৭নং ওয়ার্ডে তার স্থলে কাজ করবেন বলে জানা গেছে তারই ছোট ভাই সুমন হাওলাদার। সুমন হাওলাদার জানান, আমরা বহু কষ্টে ছিলাম। শত ব্যস্ততার মধ্যেও মেয়র সাহেব আমাদের দিকে নজর দিয়েছেন। তার দূরদর্শিতার কারণে অনেক পরিবার আবার পুনরুজ্জীবিত হলো। নুতন করে স্বপ্ন দেখতে শুরু করেছে।
বর্জ্য ব্যবস্থাপনা বিভাগে শারীরিকভাবে অক্ষম শ্রমিকদের পরিবর্তে কাজ করবে তার পোষ্য বা মনোনীত ব্যক্তি। খুলনা মহানগরীকে পরিচ্ছন্ন নগরী হিসেবে গড়ে তুলতে এমন উদ্যোগ নিয়েছেন খুলনা সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আলহাজ তালুকদার আব্দুল খালেক।
জানা গেছে, খুলনা সিটি কর্পোরেশনের বর্জ্য ব্যবস্থাপনা বিভাগের নর্দমা শ্রমিক, ড্রেন শ্রমিক, ঝাড়–দার ও ভ্যান শ্রমিকদের মধ্যে যারা অসুস্থ এবং শারীরিকভাবে কাজ করতে অক্ষম তাদের রোববার সরাসরি সাক্ষাৎকার নেন মেয়র নিজে। ওইদিন সকালে ১ থেকে ১৫নং ওয়ার্ড পর্যন্ত সাক্ষাৎকার নেন কেসিসির খালিশপুর শাখা অফিসে এবং দুপুরের পর ১৬ থেকে ৩১নং ওয়ার্ড শ্রমিকদের সাক্ষাৎকার নেন। পরিচ্ছন্ন নগরী উপহার দিতে নেওয়া হয়েছে এ উদ্যোগ। শ্রমিকদের পোষ্য বা মনোনীত ব্যক্তিদেরকে অতিসত্ত্বর প্রয়োজনীয় কাগজপত্রাদী কেসিসিতে জমা দেওয়ার জন্য বলা হয়েছে। গতকাল সোমবার কেসিসিতে ৩ জন শ্রমিকের পোষ্য বা মনোনীত ব্যক্তি আসেন। তাদের কাগজপত্র অসম্পূর্ণ থাকায় বুঝিয়ে দেওয়া হয়েছে কি কি কাগজপত্র জমা দিতে হবে।
২৬নং ওয়ার্ডের নিয়মিত শ্রমিক (ঝাড়–দার) ফরিদা বেগম। দীর্ঘদিন ধরে শারীরিকভাবে অসুস্থ। তাই তার পরিবর্তে কাজ করবেন তার ছেলে নাসির। ফরিদা বেগম কান্নাজড়িত কণ্ঠে জানান, আমরা আল্লাহ কাছে দোয়া করি, তিনি যেন আরও ভালো ভালো কাজ করতে পারেন। কখনো কল্পনা করিনি এমন একটি সুবিধা আমি পাব। তার এই মানবতার জন্য শুধু একটি দুটি পরিবার নয় অনেক পরিবার বেঁচে গেল।
১২নং ওয়ার্ড শ্রমিক আমজাদ। নর্দমা শ্রমিক। তিনি অসুস্থ। তিনি জানান, আমরা মেয়রের কাছে চির কৃতজ্ঞ। তিনি আমাদেরকে নতুন আশার আলো দেখালেন।
কেসিসির ১২ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোঃ মনিরুজ্জামান জানান, এমন উদ্যোগে খুশি নগরবাসী। বর্তমান মেয়র খুবই বিচক্ষণ মানুষ। নগরবাসীর কল্যাণে তিনি আরও অনেক নতুন নতুন উদ্যোগ নিচ্ছেন। তিনি নগরবাসীকে পরিচ্ছন্ন নগরী উপহার দিতে এমনই একটি উদ্যোগ নিয়েছেন।
খুলনা সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আলহাজ তালুকদার আব্দুল খালেক জানান, নগরবাসী পরিচ্ছন্নতা চায়। যারা কাজ করতে পারবে না তাদের দিয়ে নগরবাসীর সেবা করা যাবে না। অনেক শ্রমিক রয়েছে যারা এখন নিয়মিত (স্থায়ী) শ্রমিক। তারা এক সময় মাস্টাররোল (অনিয়মিত) শ্রমিক ছিল। তাদের এখনও বয়স রয়েছে। কিন্তু কাজ করতে অক্ষম। তাই তাদের পরিবারের থেকে তার মনোনীত একজনকে নিয়ে কেসিসির কাজ করা হবে। এর ফলে ওই পরিবারটিও বাঁচবে এবং পাশাপাশি নগরবাসীও পাবে সেবা। পরিচ্ছন্ন নগরী গড়তে যা যা করা দরকার কেসিসি তাই করবে।
সাক্ষাৎকারকালীন সময়ে উপস্থিত ছিলেন কিসিসির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (উপসচিব) পলাশ কান্তি বালা, কেসিসি সচিব মোঃ আজমুল হক, কাউন্সিলর এসএম খুরশিদ আহমেদ টোনা, মোঃ মনিরুজ্জামান, পারখিন আক্তার, ইঞ্জিঃ মোহাম্মাদ হোসেন, প্রধান বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তা মোঃ আব্দুল আজিজ, সহঃ বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তা আব্দুর রকিব, উপ-সহকারী প্রকৌশলী (বিদ্যুৎ) আসমা-উল-হুসনা, মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*